চট্টগ্রামে চতুর্থ ধাপে দুই উপজেলার ২৮ ইউপিতে ভোট শুরু

0
94

পি নিউজ ডেস্ক: ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে চট্টগ্রামের দুই উপজেলা রাউজান ও হাটহাজারীর ২৮টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে। শুরু থেকেই নারী ও পুরুষের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে ভোট কেন্দ্রগুলোতে। নানা শঙ্কার মধ্যেও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন ঘিরে যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সতর্ক রয়েছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।
শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।
বৃহস্পতিবার হাটহাজারীতে নির্বাচনী প্রচারণার শেষমহূর্তে ক্ষমতাশীন দলের অভ্যন্তরীন কোন্দোলে এক যুবলীগ নেতা নিহতের ঘটনায় সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আতঙ্কে রয়েছেন প্রার্থী ও ভোটাররা। উপজেলার মীর্জাপুর ইউনিয়নে সরকার হাট এলাকায় শেষ মুহূর্তের ইউপি নির্বাচনী প্রচারণায় নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের ভুল বোঝাবুঝিকে কেন্দ্র করে গুলিতে নিহত হয়েছেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আবছারের সমর্থক ও যুবলীগ নেতা নুর এলাহী জুয়েল (৩৬)। এ নিয়ে জনমনে উদ্বেগ ও আতংক সৃষ্টি রয়েছে।
এদিকে রাউজানে ১৪ ইউপির মধ্যে তিনটিতে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে বিনাজুরী ইউনিয়নে। গত দু’দিনে অপর দু’ইউনিয়নে দু’জন প্রার্থী নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।
হাটহাজারীর ঘটনা নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলবেনা দাবি করে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) কাজী আবদুল আওয়াল বলেন, ‘বৃহস্পতিবারে ঘটনা নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলবেনা। ভুল বোঝাবুঝি থেকে এ ঘটনা ঘটেছে। হাটহাজারীতে সর্বোচ্চ সংখ্যক ফোর্স মোতায়েন থাকবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বেশি নজরদারি থাকবে। যে কোনা ধরনের বিশৃংখলা কঠোরভাবে দমন করা হবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটগ্রহণের লক্ষ্যে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। প্রতিটি ভোটকেন্দ্র একজন অফিসারের নেতৃত্বে ৫-৬ জন অস্ত্রধারী পুলিশ ও আনসার, এপিবিএন বাহিনী মিলে ২১ জন করে সদস্য নিয়োজিত আছেন। গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও প্রতি তিন কেন্দ্রের জন্য এক প্লাটুন করে মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স মাঠে আছে। এছাড়াও বিজিবি, র্যাব ও মোবাইল কোর্ট দায়িত্ব পালন করছেন।’
নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, নির্বাচন উপলক্ষে বৃহস্পিতবার থেকে নির্বাচনী এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় মাঠে নেমেছে বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা। মাঠে রয়েছে জুডিশিয়াল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। শুক্রবার বিকেলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নিরাপত্তায় ব্যালট পেপারসহ ভোট সরঞ্জাম ভোট কেন্দ্রগুলোতে পৌঁছানোর কাজ শেষ হয়।
সূত্র জানায়, রাউজানের ১৪ ইউনিয়ন ও হাটহাজারীর ১৪ ইউনিয়নসহ মোট ২৮ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে রাউজানে ১৪ ইউনিয়নের মধ্যে ১১টিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে না। এসব ইউনিয়নে সরকারি দলীয় প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে চলেছেন। এছাড়া উপজেলার যে তিনটি ইউনিয়ন কদলপুর, নোয়াপাড়া, বিনাজুরীতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার প্রশাসনের প্রস্তুতি আছে, এর মধ্যে কদলপুর ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোজাহেদ উদ্দীন চৌধুরী লিংকন গত ৫ মে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন। গতকাল বিকালে নোয়াপাড়া ইউনিয়নে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী জসিম উদ্দিন সাংবাদিকদের কাছে ই-মেইল বার্তায় নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। তাই শেষ পর্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে বিনাজুরী ইউনিয়নে।
এছাড়াও সংরক্ষিত ও সাধারণ সদস্য পদে ১১২ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন। চেয়ারম্যান পদে তিন ইউনিয়ন ও মেম্বার পদে ৫৬ ওয়ার্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ভোটার সংখ্যা এক লাখ ২৫ হাজার ৫২৯। ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৬৯টি। ভোটকক্ষ ৩৪১টি। ভোটগ্রহণে ৬৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন। সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ৩৪১ জন ও পোলিং অফিসার ৬৮২ জন কর্মকর্তা দায়িত্বে থাকবেন।
হাটহাজারীর ১৪ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬৫ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১০৮ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৪৮৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৮০। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ২৫ হাজার ৮৯৫ জন ও মহিলা ভোটার এক লাখ ২১ হাজার ৫৮৫ জন। ভোটকেন্দ্র ১২৮টি। ভোটকক্ষ ৫৯৭টি। এক হাজার ৯১৯ জন নির্বাচনী কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করবেন। এরমধ্যে প্রিসাইডিং অফিসার ১২৮ জন, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ৫৯৭ ও পোলিং অফিসার এক হাজার ১৯৪ জন।
রিটার্নং অফিসার সেলিম রেজা বলেন, ‘নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পুলিশ, র্যাব, বিজিবিসহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ২১ জন পুলিশ ও আনসার সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকবেন বিজিবি, র্যাব সদস্যরা।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here