আত্মশুদ্ধি অর্জিত হয় সিয়াম সাধনায় (পর্ব ১)

0
135

 

সৈয়্যদ নূরে আখতার হোসাইন:

ফারসি শব্দ রোজার আরবি অর্থ হচ্ছে সওম, বহুবচনে সিয়াম। সওম বা সিয়ামের বাংলা অর্থ বিরত থাকা, কঠোর সাধনা, আত্মসংযম ইত্যাদি। ইসলামী শরিয়তে সওম হল আল্লাহর নির্দেশ পালনের উদ্দেশে সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার ও যাবতীয় ইন্দ্রিয় তৃপ্তি থেকে বিরত থাকার কঠোর সাধনা। রমজান মাসে প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ-সবল জ্ঞান সম্পন্ন মুসলিম নর-নারীর ওপর সিয়াম পালন করা ফরজ।

আত্মসংযম, আত্মনিয়ন্ত্রণ, আত্মশুদ্ধি, ধৈর্য ও তাকওয়া অর্জনের অন্যতম প্রধান উপায় সিয়াম। এ ইবাদতের মাধ্যমেই মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভ করা সম্ভব হয়। আল্লাহ ভীতি বা তাকওয়া অর্জন এবং আধ্যাত্মিক উন্নতি সাধনেও সিয়াম অপরিহার্য ও অনিবার্য ইবাদত। মানুষের নৈতিক উন্নয়ন ও দৈহিক শৃংখলা বিধান, পারস্পরিক সম্প্র্রীতি-সহানুভূতি এবং সামাজিক সাম্য ও উন্নয়নের ক্ষেত্রেও সিয়ামের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আত্মসংযম ও আধ্যাত্মিক উন্নতিতে সিয়ামের গুরুত্ব এত ব্যাপক যে প্রত্যেক নবী-রাসূলের অনুসারীদের ওপর তা অপরিহার্য ছিল।

আল্লাহ মুসলমানদের হিজবুল্লাহ তথা আল্লাহর বাহিনী ঘোষণা করেছেন। দুনিয়ার শাসকরা যেমন তাদের বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয় আল্লাহও মুসলিম বাহিনীর চারিত্রিক, নৈতিক ও মানবিক গুণের বিকাশের জন্য মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার মতো প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছেন। যেন তারা কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ ও অন্যসব রিপুর ঊর্ধ্বে থেকে আল্লাহর নির্দেশিত সব দায়িত্ব সুচারুরূপে পালন করতে পারে। তাদের দিয়ে যেন কোনো ধর্ম, বর্ণ, শ্রেণী ও গোত্রের মানুষ নিগৃহীত ও নির্যাতিত না হয়। সব মানুষ যেন ন্যায়বিচার পায়। চলবে—

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here