এইচএসসিতে গড় পাস ৭৪.৭০ শতাংশ, ৫৮ হাজার জিপিএ-৫

0
175

পি নিউজ ডেস্ক:
এবার এইচএসসি (উচ্চ মাধ্যমিক) ও সমমানের পরীক্ষায় দশ বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৪ দশমিক ৭০ শতাংশ। গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৬৯ দশমিক ৬০ শতাংশ। এবার পাসের হার ৫ দশমিক ১ শতাংশ বেড়েছে। এবার সর্বোচ্চ পাশের হার যশোর শিক্ষা বোর্ডে।

মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৮ হাজার ২৭৬ জন। গত বছর এ সংখ্যা ছিলো ৪২ হাজার ৮৯৪ জন। এবার জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৩৮২ জন বেড়েছে। এবার ছেলেদের পাসের হার ৭৩ দশমিক ৯৩ ও মেয়েদের পাসের হার ৭৫ দশমিক ৬০ শতাংশ।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বৃহস্পতিবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের সার-সংক্ষেপ তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। পরে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা বোর্ড ও কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রীর হাতে নিজ নিজ বোর্ডের ফলাফলের কপি তুলে দেন।

এবার যশোর শিক্ষা বোর্ডে শিক্ষার্থীদের পাসের হার ৮৩ দশমিক ৪২,চট্টগ্রামে ৬৪ দশমিক ৬০, বরিশালে ৭০ দশমিক ১৩, কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৬৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ, দিনাজপুরে ৭০ দশমিক ৬৪, সিলেটে ৬৮ দশমিক ৫৯ এবং রাজশাহীতে ৭৫ দশমিক ৪০শতাংশ।

তবে যশোর শিক্ষা বোর্ড এবার পাশের হারের দিক থেকে রেকর্ড করেছে। গত বছর যশোর বের্ডের পাশের হার ছিলো ৪৬ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

এবার মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে আলিমে পাসের হার ৮৮ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত বছর এ বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯০ দশমিক ১৯ শতাংশ। আর কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৮৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ। গত বছর এ হার ছিল ৮৫ দশমিক ৫৮ শতাংশ।

দুপুর একটায় শিক্ষামন্ত্রী সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করবেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে।

এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় গত ৩ এপ্রিল। তত্ত্বীয় (লিখিত) পরীক্ষা ৯ জুন শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’র কারণে ২২ মে’র এইচএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে ১২ জুন নেওয়া হয়। ১১ থেকে ২০ জুনের মধ্যে হয় ব্যবহারিক পরীক্ষা।

এই এইচএসসি ও সমমানের ফল থেকেই শিক্ষার্থীরা জিপিএ’র সঙ্গে বিষয়গুলোর নম্বরও জানতে পারবে বলে ইতোমধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

যেভাবে ফল পাওয়া যাবে

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি সূত্রে জানা গেছে, আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি (ভোকেশনাল) ও ডিআইবিএস পরীক্ষার ফল দুপুর দুইটা থেকে পাওয়া যাবে।

শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট, সংশ্লিষ্ট সকল পরীক্ষা কেন্দ্র ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এসএমএসের মাধ্যমে একযোগে প্রকাশ করা হবে।

পরীক্ষার্থীরা শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফল সংগ্রহ করতে পারবে।

আটটি সাধারণ বোর্ডের ক্ষেত্রে এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে HSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর, স্পেস দিয়ে রোল নম্বর, স্পেস দিয়ে ২০১৬ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

আলিমের ক্ষেত্রে ফল জানতে Alim লিখে স্পেস দিয়ে Mad (বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর) স্পেস দিয়ে রোল নম্বর, স্পেস দিয়ে ২০১৬ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

এছাড়া এইচএসসি ভোকেশনালের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে Tec লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৬ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

তিন ক্ষেত্রেই ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here