প্রথম দিনে ২১টি জেলায় ১৯১ কোটি টাকা কর আদায়

0
42

পিনিউজ ডেস্ক : জাতীয় আয়কর মেলা-২০১৬ এর প্রথম দিনে করদাতাদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। সাত দিনের এ মেলার প্রথম দিনে আদায় হয়েছে ১৯১ কোটি ৪১ লাখ ৬৬ হাজার ৮১২ টাকা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা এ মুমেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
জানাগেছে, প্রথম দিনে দেশের ২১টি জেলায় আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠিত মেলা থেকে কর সেবা নিয়েছেন ৫৯ হাজার ২৯২ জন করদাতা। এরমধ্যে ১৬ হাজার ৮৬ জন করদাতা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছেন। এর বিপরীতে প্রায় ১৯১ কোটি ৪১ লাখ টাকা আয়কর আদায় হয়েছে। মেলা থেকে নতুন ৪ হাজার ৮৫৭ জন করদাতা ই-টিআইএন নিয়েছেন।
এদিকে আয়কর মেলার দ্বিতীয় দিন বুধবার বিকেলে মেলা প্রাঙ্গণে ‘ট্যাক্স ক্যালকুলেটর’হস্তান্তর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।
এছাড়া দুপুর ২টায় মেলা প্রাঙ্গণে প্রথমবারের মতো কর শিক্ষণ ফোরামের রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করবেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।
এরআগে দুপুরে দেশের ইতিহাসে জাতীয় ৭ম আয়কর মেলার উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অর্থমন্ত্রীর উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ১ নভেম্বর থেকে ৭ নভেম্বর ঢাকাসহ সকল বিভাগীয় শহরে ৭দিন, অন্য সকল জেলা শহরে ৪দিন, দ্বিতীয়বারের মতো ২৯ উপজেলায় ২দিন এবং ৫৭ উপজেলায় ১ দিনের ভ্রাম্যমাণ আয়কর মেলার আনুষ্ঠনিকতা শুরু হয়।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আয়কর মেলার মূল উদ্দেশ্য ছিল মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরি ও মানুষকে কর প্রদানে উদ্ধুদ্ধ করা। সেই উদ্দেশ্য সফল হয়েছে। মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে বর্তমানে করদাতার সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে নতুন সাড়ে ৩ লাখ নতুন করদাতা যোগ হয়েছে। বছর শেষে এ সংখ্যা ১০ লাখে উন্নীত হবে। এ অর্থবছরে করদাতার সংখ্যা ২৫ লাখে উন্নীত হবে। কর মেলার মাধ্যমে তরুণ ও দেশপ্রেমিক করদাতারা উদ্ধুদ্ধ হচ্ছে।
অর্থ প্রতিমন্ত্রী জনাব এমএ মান্নান বলেন, কর মেলার সুনাম দেশের সীমানা ছাড়িয়ে গেছে। বিদেশিরা পর্যন্ত আমাদেও জিজ্ঞাসা করে মেলা করে কিভাবে কর আদায় হয়।
অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বলেন, তরুণ করদাতাদের উৎসাহ প্রদানের জন্য ব্যাপক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ কর সংগ্রহের মাধ্যমে সরকারের মেগা উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। গতবছরের চেয়ে এবারের মেলা ও সেবার পরিধি বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিশেষ করে এ মেলার মাধ্যমে জাতীয় জীবনে সর্বস্তরে করদাতা বান্ধব সংস্কৃতি চালু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here