সাতশ বছরের মধ্যে এই প্রথম মোহছেন আউলিয়ার ওরস স্থগিত

0
93

পিনিউজ ডেস্ক:

করোনা ভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকিকে অগ্রাধিকার দিয়ে চট্টগ্রামের আনোয়ারার আধ্যাত্বিক হযরত শাহ্ মোহছেন আউলিয়া (র.) মাজারে বার্ষিক দুই দিনব্যাপী ওরস শরীফ প্রায় ৭শত বছর পর প্রথমবারের মত স্থাগিত করা হয়েছে।

সোমবার (৮ জুন) দুপুরে উপজেলার বটতলী মাজার প্রাঙ্গণে দরবার শরীফ পরিচালনা কমিটির আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে দরবার শরীফ পরিচালনা কমিটির যুগ্ম মোতোয়াল্লী এস.এম জহিরুল ইসলাম লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

তিনি জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও ২০ জুন বাবাজানের ওরশ শরীফ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কিন্তু বিশ্বব্যাপী মহামারী করেনা ভাইরাসের কারণে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিসহ সারাবিশ্ব এখন কার্যত স্থবির। রোগটি ছোঁয়াছে হওয়ায় পরস্পরের সাথে স্পর্শেতো দূরে থাক, কমপক্ষে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে প্রয়োজনীয় কাজ করতে হচ্ছে। পরিস্থিতি দিনদিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। তাই দেশের দূর-দূরত্ব থেকে আসা ভক্ত ও আশেকদের কথা চিন্তা করে দরবারের এক জরুরি সভায় ওরশ স্থগিত সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। সকল ভক্তদের দরবারে না এসে ঘরে বসে মহামারী থেকে রক্ষা পেতে সকলেই যেন মুক্তি পান বাবাজানের নিকট এই আর্জি বা প্রার্থনা করা হচ্ছে। সকলকে ঘরে থাকাও আহ্বান করছি।

তিনি আরো জানান, প্রতিবছর ওরশ শরীফে লাখ লাখ লোক সমবেত হয়ে থাকেন। এ বছর করোনোভাইরাসের কারণে জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকিকে অগ্রাধিকার দিয়ে দুই দিনব্যাপী ওরশ শরীফ স্থগিত করা হয়েছে। প্রায় ৭শত বছর পর এবারই প্রথম বারের মত ওরশ শরীফ স্থগিত করা হল।

সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম মোতায়াল্লী এস.এম ফজলুর করিম, সদস্য আবু তাহের মিয়া, প্রধান সহকারী হাবিবুর রহমানসহ দরবার পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

মাহাবুবে রব্বানী গাউছে ছমদানি হযরত শাহসূফি ছৈয়দ বাবা মোহছেন আউলিয়া (র.) ৮৮৬ হিজরী ৭২ বাংলা ১৪৬৬ সনে ১২ রবিউল আউয়াল জন্ম গ্রহণ করেন। প্রতিবছর ২০ জুন ৬ আষাঢ় বার্ষিক ওরশ শরীফ অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এ বছর করোনোভাইরাসের কারণে জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকিকে অগ্রাধিকার দিয়ে ২দিন ব্যাপী ওরশ শরীফ স্থগিত করা হয়েছে। প্রায় ৭শত বছর পর এবারই প্রথম বারের মত ওরশ শরীফ স্থগিত হয়েছে। প্রতিবছর বার্ষিক ওরশ শরীফকে ঘিরে উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের ররুমহাট দরগাহ প্রাঙ্গণে মাজার পরিচালনা কমিটি ছাড়াও উপজেলার ১১ ইউনিয়নের বিভিন্ন সামাজিক, ধর্মীয় সংগঠন ও ভক্তরা কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল ও তবারুক বিতরণের মধ্য দিয়ে ওরশের কর্মসূচি পালনের আয়োজন করে থাকে। ওরশে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লক্ষ লক্ষ ভক্তগণ দরবারে আসতো। ওরশকে ঘিরে রাতব্যাপী বটতলী রুস্তমহাট ও আশপাশ এলাকায় ভক্তরা কবিগান, জারিগান ও ধর্মীয় গানের আসরের আয়োজন ছাড়াও পুরো এলাকায় মেলা বসতো।

আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ দুলাল মাহমুদ বলেন, দরবারের ওরশকে ঘিরে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার ভক্তরা দরবারে এসে থাকে। এ বছর করোনোভাইরাসের কারণে জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকিকে অগ্রাধিকার দিয়ে ওরশ শরীফ স্থগিত করেছে মাজার পরিচালনা কমিটি। থানায় লিখিতভাবেও বিষয়টি জানানো হয়েছে।