শাহাদাত এ কারবালা ন্যায় ও সত্যের পথে অবিচল থাকার শিক্ষা দেয়: রেজাউল করিম চৌধুরী

0
71

পিনিউজ ডেস্ক:
ইয়াজিদের সৈন্য বাহিনীর হাতে নবী করিমের (সা.) দৌহিত্র, হযরত ইমাম হোসাইন (রা.) এর শাহাদাত বরণ হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত হৃদয় বিদারক ও মর্মান্তিক। কারবালার প্রান্তরে পবিত্র আশুরার দিনে ঘটে যাওয়া এ মর্মান্তিক ঘটনার স্মরণ করতে গিয়ে আমাদের হৃদয় ব্যথিত হয়। শোকে আচ্ছন্ন হয়ে পড়ি আমরা।
কিন্তু কারবালার লোমহর্মষক এ ঘটনা আমাদেরকে বেদনাতুর করার পাশাপাশি অন্যায়ের বিরুদ্ধে, জুলুমের বিরুদ্ধে, অনাচারের বিরুদ্ধে এবং পাপাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে এবং সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল থেকে এগিয়ে যাবার শিক্ষা দেয়।
শাহাদাতে কারবালা স্মরণ ও সালানা ওরশ মোবারক উপলক্ষে গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশ ৩ নং পাচঁলাইশ ওয়ার্ড আয়োজিত মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চসিক মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
তিনি আরো বলেন, নবী বংশের উজ্জ্বলতম প্রদীপ হযরত হাফিজ ক্বারী সৈয়দ মুহাম্মদ তৈয়ব শাহ (রহ.) এর নির্দেশনায় মানুষের কল্যাণ সাধন করতেই ১৯৮৬ সালে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। করোনা মহামারীর মতো ক্রান্তিকালে গাউসিয়া কমিটি মানবতার পাশে দাঁড়িয়ে হযরত তৈয়্যব শাহ (রহ.) এর দূরদৃষ্টির সার্থক রূপায়ন করেছে। করোনায় আক্রান্ত মৃতব্যক্তিদের জাত-ধর্ম বিবেচনা না করে দাফন কাফন কার্যক্রম করে সমাজকে নতুন করে গাউসিয়া কমিটি অসা¤প্রদায়িক চেতনার রূপের সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন আনজুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের সেক্রেটারী জেনারেল আলহাজ্ব মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ হজরতুল আল্লামা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান আল কাদেরী, চেয়ারম্যান আলহাজ্ব পেয়ার মুহাম্মদ, আলহাজ্ব মুহাম্মদ এমরান, আলহাজ্ব মুহাম্মদ সাদেক হোসেন পাপ্পু, মুহাম্মদ কাশেম।
আলহাজ্ব মাওলানা ইয়াছিন মাহমুদ সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন আল্লামা কাজী মুহাম্মদ মঈনুদ্দিন আশরাফী, প্রফেসর ড. আকবর হোসেন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবদুল হামিদ সর্দার, আলহাজ্ব ছৈয়দ মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, আলহাজ্ব এড. মুহাম্মদ এছহাক, মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন খোকন।