প্রশাসক সুজনের সাথে আহলে সুন্নাত নেতৃবৃন্দের বেঠক

0
133

নিজস্ব প্রতিবেদক:

১৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুর ১২.৩০ টার সময়, চট্টগ্রাম ষোলশহর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার অধ্যক্ষের কার্যালয়ে, চট্টগ্রাম নগরীর পোর্ট কানেক্টিং রোডের মাজার ভাঙ্গার বিষয়টি নিয়ে চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আতের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠক করেন।

বৈঠকে প্রশাসক ও আহলে সুন্নাত নেতৃবৃন্দের আন্তরীকপূর্ণ দ্বীর্ঘ আলাপের পর, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের মুখপাত্র এডভোকেট মোসাহেব উদ্দিন বখতেয়ার, ওস্তাাযুল ওলামা, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার প্রধান ফকিহ মুফতি কাজী মুহাম্মদ আবদুল ওয়াজেদ আলক্বাদেরী (মা. জি. আ.), মুহাদ্দিস আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ আশরাফুজ্জামান আলক্বাদেরী (মা.জি.আ.), মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদারসহ ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
উক্ত কমিটিকে আগামী শনিবার সকাল ৯ টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে, ঐ এলাকার প্রবীণ মানুষদের কাছে জিজ্ঞাসাবাদ পূর্বক মাজারটি আসলেই প্রকৃত অলী আল্লাহর মাজার কিনা, তার একটি চুড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরির নির্দেশ দেন চসিক প্রশাসক। তৈরিকৃত প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই রাস্তার স¤প্রসারণ কাজ এবং মাজার সংরক্ষণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন বলে, চসিক প্রশাসক বৈঠকে সবাইকে আশ্বস্থ করেন । তখন অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আঞ্জুমানের রহমানিয়ার আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের সেক্রেটারী জেনারেল, আলহাজ্ব আনোায়ার হোসাইন, বাংলাদেশে ইসলামী ফ্রন্টের যুগ্ম মহাসচিব স.উ.ম. আবদুস সামাদ প্রমুখ। পরিশেষে দেশ ও মাযহাব মিল্লাতের শান্তি কামনায় মুনাজাত পরিচালনা করেন জামেয়ার অধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমানা আলক্বাদেরী (মা. জি. আ.)।
উল্লেখ্য গত ১৪ অক্টোবর নগরীর পোর্ট কানেকটিং রোডের সরাইপাড়া এলাকায় সড়ক স¤প্রসারণের কারণে রাস্তার পাশে থাকা একটি বহু বছরের পুরানো মাজার শরীফ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়ার বিভিন্ন ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ এ ঘটনায় প্রতিবাদ জানালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত নেতৃবৃন্দের দৃষ্টিগোচর হয়। এরপর আহলে সুন্নাত নেতৃবৃন্দ চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজনের সাথে এ বিষয়ে আলাপ করলে, চুড়ান্ত একটি সিদ্ধান্তের জন্য তিনি একটি বৈঠক আয়োজন করার নির্দেশ দেন।