জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি

0
38

পিনিউজ ডেস্ক:

দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ দিনের কেন্দ্রীয় কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) দুপুরে নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বে থাকা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

আগামী ২৯ মে থেকে শুরু হয়ে এই কর্মসূচি চলবে ১২ জুন পর্যন্ত। কর্মসূচির মধ্যে আছে, ২৯ মে বিকাল সাড়ে ৩টায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা, ৩০ মে ভোরে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ পরিধান, সকাল ১১টায় শেরে বাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পন, ৩১ মে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) উদ্যোগে আলোকচিত্র প্রদর্শনী।

৩০ ও ৩১ মে রাজধানীর ৮০টি স্থানে দুস্থদের মধ্যে খাবার ও কাপড় বিতরণ করবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা।

এছাড়া জিয়াউর রহমানের কর্মময় জীবনের ওপরে ১ জুন স্বেচ্ছাসেবক দল, ২ জুন ছাত্রদল, ৩ জুন যুবদল, ৫ জুন মৎস্যজীবী দল, ৬ জুন শ্রমিক দল, ৭ জুন জাসাস, ৮ জুন তাঁতী দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা, ৪ জুন মহিলা দলের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল এবং ৯ জুন জিয়া স্মৃতি পাঠাগারের উদ্যোগে শহীদ জিয়ার উপর প্রকাশিত বই প্রদর্শনীর কর্মসূচি রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে প্রিন্স বলেন, “প্রতিবছরের ন্যায় এবারও মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গণতন্ত্রের পুনঃপ্রবর্তক, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের ৪০তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ দিনব্যাপী এই কর্মসূচি বিএনপি গ্রহণ করেছে। করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসকল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে।”

১ থেকে ১২ জুন পর্যন্ত সারাদেশে জেলা ও মহানগরীতে ইউনিটের উদ্যোগে আলোচনা সভা হবে। এসসব আলোচনা সভায় দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ সরাসরি অথবা ভার্চুয়ালি ওইসব কর্মসূচিতে অংশ নেবেন বলে জানান প্রিন্স।

এ উপলক্ষে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে পোস্টার প্রকাশ করেছে বিএনপি। ৩০ মে বিভিন্ন সংবাদপত্র ক্রোড়পত্র প্রকাশিত করবে বলে জানান তিনি।

১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে একদল সেনার হাতে নিহত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে দলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক জাহানারা সিদ্দিকী, মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার ও উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলিম নকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।